আজকের ট্রেন্ডিং

সাকিবের বিষয়ে তদন্ত করবে দুদক! নিশ্চুপ সাকিব

সাকিবের বিষয়ে তদন্ত করবে দুদক! নিশ্চুপ সাকিব

বিতর্ক আর সাকিব আল হাসান যেন সমার্থক শব্দ। বিতর্ক যেন পিছুই ছাড়ছে না জাতীয় দলের টেস্ট টিটোয়েন্টি অধিনায়কের।বিতর্কিত সব কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ায় এই অলরাউন্ডারকে নিয়ে ২২ গজের বাইরেও চলছে সমালোচনার ঝড়। 

অন্যদিকে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর ব্র‍্যান্ড অ্যাম্বাসেডর আবার বাংলাদেশ ক্রিকেটের এই পোষ্টার বয়। কিন্ত জুয়া প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি, শেয়ার বাজার কারসাজি, নিজের বাবার নাম জালিয়াতি , একের পর এক অভিযোগ লেগেই আছে সাকিবের বিরুদ্ধে। 

সম্প্রতি এসব কর্মকান্ডে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে সাকিবের বিরুদ্ধে। এতে বিব্রত দুদুক ও। এবার এগুলো নিয়ে মুখ খুললেন দুদক কমিশনের সচিব। ২০১৮ সালে দুদকের ব্র‍্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে চুক্তি করেন সাকিব। তাই তার দুর্নীতিতে দুদকের ভাবমূর্তি ক্ষূন্ন হবে কি না সাংবাদিকরা জানতে চান দুদক কমিশনের সচিব মো. মাহবুব হোসেনের কাছে। জবাবে তিনি বলেন,” অভিযোগ এলেই তো সঙ্গে সঙ্গে কোন কিছু হয় না। একটু সময় দেন। বিষয়টি দুর্নীতি দমন কমিশন দেখছে, অপেক্ষা করুন।

তিনি আরও বলেন, “আপনারা জানেন, সাকিব আল হাসান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার এবং দলের অধিনায়ক। তার সঙ্গে দুদকের ২০১৮ সালে ব্র‍্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে যে চুক্তি হয়েছিল, সেটি ছিল বিনা পারিশ্রমিকে। উনি দুদকের হয়ে তথ্যচিত্র তৈরিতে কাজ করবেন এবং তার সঙ্গে শুধু একবার ২০১৮ সালে যখন দুদকের ১০৬ কমপ্লেইন হটলাইন চালু হয়, তখন একটি তথ্যচিত্র করা হয়েছিল। পরবর্তীতে আর কোন তথ্যচিত্র বা কোন কার্যক্রম হয়নি।

বর্তমানে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ খেলতে ওয়েস্ট ইন্ডিজে আছেন সাকিব। এই ব্যাপারে তিনি এখনো চুপ। গণমাধ্যমে কোন বক্তব্যও দেয়নি। তবে সাকিবের এমন বিতর্কিত কর্মকান্ডে বিব্রত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। দেশে ফিরলে, সাকিবের কাছে এসব বিতর্কিত কর্মকান্ডের ব্যাখ্যা চাইতে পারে বিসিবি।

 সামনেই নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ। এরপর টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সেখানে সাকিবের নেতৃত্বেই খেলবে টিম বাংলাদেশ।

আরো আজকের ট্রেন্ডিং