আজকের ট্রেন্ডিং

পাওয়ার হিটিং দুর্বলতা বাংলাদেশকে বিশ্বকাপে ভোগাবে ঃ লিটন দাস

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সাফল্যের প্রথম সূত্র ‘পাওয়ার হিটিং’। যে যত জোরে ব্যাট চালাতে পারবে, তার সফল হওয়ার সম্ভাবনা ততো বেশি। আর এই জায়গাটায় পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। ওপেনার লিটন দাস তো মনে করছেন, উন্নতি করতে না পারলে এই দুর্বলতা বিশ্বকাপেও ভোগাবে তাদের।

গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তৃতীয় এবং শেষ টি-টোয়েন্টিতেও হেরে ২-০ তে সিরিজ হারে বাংলাদেশ। হারের পর লিটন বলেন, ‘অনেকে বলে টি-টোয়েন্টি টেকনিকের খেলা, অনেকে বলে দক্ষতার খেলা। আমার কাছে মনে হয়, অনেক সময় পাওয়ার হিটিংয়েরও প্রয়োজন হয়।’

এই ওপেনার আরো বলেন, ‘পাওয়ার হিটিংয়ে আমরা অনেক পিছিয়ে আছি। বিশ্বকাপে মাঠ অনেক বড় থাকবে। এটা আমাদের ভোগাবে। বেশি বেশি অনুশীলন করে এবং ম্যাচ খেলে যদি এতে আমরা উন্নতি করতে পারি, তাহলে আশা করি বিশ্বকাপে ভালো আত্মবিশ্বাস নিয়ে যেতে পারব।’

বাংলাদেশের দেওয়া ১৬৩ রানের টার্গেটটা ১০ বল হাতে রেখেই টপকে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মূলত ক্যারিবিয় অধিনায়ক নিকোলাস পুরান এবং কাইল মেয়ার্সের ব্যাটিং ঝড়ে উড়ে গেছে বাংলাদেশ। তাদের ব্যাটিংয়ের কৃতিত্ব দিতে গিয়ে আবারো নিজেদের ব্যর্থতা এবং সামর্থ্যের অভাবের কথা স্বীকার করলেন লিটন।

লিটন বলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজকে কৃতিত্ব দিতেই হবে, যেভাবে তারা ব্যাটিং করেছে। ভালো বলেও ওরা মেরেছে। ওদের বাড়তি সুবিধা ওরা পাওয়ার ক্রিকেট খেলে, যেটা আমরা খেলতে পারি না। আমার মনে হয়, বোলারদের মাথায় এটাও অনেক সময় কাজ করে তারা একটু উনিশবিশ হলেই মেরে দিবে।’

লিটন আরো বলেন , ক্যারিবিয়ানরা জাতিগতভাবে শক্তিশালী। যেটা বাংলাদেশের কেউই না। তারা চাইলে যেকোনো সময় ছক্কা মারতে পারে। যে সামর্থ্যটা আমাদের নেই। ক্যারিবিয়রা যে বলে অনায়াসে ছক্কা মারে, বাংলাদেশিরা সেই বলে বড়জোর চার মারার আশা করে।

আরো আজকের ট্রেন্ডিং