ব্লগ

ক্রিকেট হাইলাইটস, ২৭ জুলাই: ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারত (৩য় ওডিআই)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারত

ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারত (৩য় ওডিআই) – হাইলাইটস

বুধবার ত্রিনিদাদের পোর্ট অব স্পেনে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ১১৯ রানে হারিয়েছে সফরকারী ভারত। এই জয়ে তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজে ক্যারিবীয়দের ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করলো সফরকারীরা।

ভারতীয় অধিনায়ক শিখর ধাওয়ান টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন এবং স্বাগতিকদের বোলিং করতে পাঠান। ব্যাটিং করতে নেমে ওপেনিংয়ে শত রানের জুটি গড়ে তোলেন অধিনায়ক শিখর ও ওপেনার শুবমান গিল।

দুজনের ১১৩ রানের ওপেনিং জুটি ভাঙেন হেইডেন ওয়ালশ। তার বলে নিকোলাস পুরানের হাতে ক্যাচবন্দী হন শিখর। ভারত অধিনায়ক ৭৪ বলে ৫৮ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরলেও ক্রিজের একপ্রান্ত আগলে রাখেন গিল। এর কিছুক্ষণ পরই ম্যাচে বাঁধ সাধে বৃষ্টি। ভারতের ইনিংস দুবার বৃষ্টির সম্মুখীন হয়। ২৪তম ওভার শেষে বৃষ্টির পর ম্যাচ নামিয়ে আনা হয় ৪০ ওভারে।

এরপর গিলকে সঙ্গ দিতে এসে ৩৪ বলে ৪৪ রানের মারকুটে ইনিংস উপহার দেন শ্রেয়াস আইয়ার। তিনি আরও বিপদজনক হয়ে ওঠার আগে তাকে সাজঘরের পথ দেখান আকিল হোসেন। এরপর ওয়ালস এসে আউট করেন সূর্যকুমার যাদবকে। তিনি ৬ বলে ৮ রান করেন।

অন্যদিকে গিল তার ক্যারিয়ার সেরা ৬৪ রানের ইনিংস পেরিয়ে এগোতে থাকেন প্রথম সেঞ্চুরির পথে। তাকে সঙ্গ দিতে ক্রিজে সঞ্জু স্যামসন আসলেও আবারও বাধা হয়ে দাঁড়ায় বৃষ্টি। ভারত ৩৬ ওভারে ৩ উইকেটে ২২৫ রান তোলার পর বৃষ্টির কারণে প্রায় আড়াই ঘণ্টা খেলা বন্ধ থাকে। বৃষ্টি যতক্ষণে বিদায় নিয়েছে, ম্যাচ অফিশিয়ালদের সিদ্ধান্ত, খেলা হবে ৩৬ ওভার। ফলে ভারত আর মাঠে নামতে পারেনি।

ফলে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিটি আর হাঁকানো হয়নি গিলের। মাত্র ২ রানের আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাঁকে। সাত বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায়, ৯৮ বলে ৯৮ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন তিনি। অপরদিকে ৬ রানে অপরাজিত থাকেন স্যামসন।

বৃষ্টির জন্য ৩৫ ওভারে ২৫৭ রানের লক্ষ্য পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রান তাড়া করতে নেমে দ্বিতীয় ওভারেই বড় ধাক্কা খায় স্বাগতিকরা। তিন বলের মধ্যে কাইল মায়ার্স (০) ও শামারাহ ব্রুকসকে (০) তুলে নেন ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ সিরাজ। ১.৩ ওভারের মধ্যে ২ উইকেটে হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজ স্কোরবোর্ডে তখনো রান যোগ করতে পারেনি। তৃতীয় উইকেটে শাই হোপ ও ব্রান্ডন কিং মিলে ৪৭ রানের জুটি গড়ে তোলেন।

২২ রান করা হোপকে তুলে নেন যুজবেন্দ্র চাহাল। নিকোলাস পুরান ও কিং ২৭ রানের জুটি গড়ে লড়াইতে রেখেছিলেন ক্যারিবীয়দের। কিন্তু অক্ষর প্যাটেলের আর্ম বলে কিং (৪২) আউট হওয়ার পর ম্যাচে ভালোভাবেই এগিয়ে যায় ভারত।

৩২ বলে ৪২ রান করা অধিনায়ক পুরান এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে চেষ্টা চালিয়ে গেলেও কাজ হয়নি। ওভারপ্রতি গড়ে ১০ রানেরও বেশি দরকার ছিল ক্যারিবিয়ানদের। ২২তম ওভারে দলীয় ১১৯ রানে পুরান আউট হওয়ার পর জয়ের আশা নিভে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের। ২৬ ওভারে ১৩৭ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফলে ১১৯ রানের বিশাল জয় পায় ভারত।

ভারতের পক্ষে যুজবেন্দ্র চাহাল ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট শিকার করেন। এছাড়া শার্দুল ঠাকুর ও মোহাম্মদ সিরাজ ২টি করে এবং অক্ষর প্যাটেল ও প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ ১টি করে উইকেট তুলে নেন। দুর্দান্ত পারফর্ম করে প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ এবং সিরিজ নির্বাচিত হয়েছেন শুবমান গিল। আগামী ২৯ জুলাই থেকে এই দুই দল পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে।


ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারত এর স্কোরবোর্ড

ভারত২২৫/৩ (৩৬.০)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ – ১৩৭/১০ (২৬.০)

ফলাফল – ভারত ১১৯ রানে জয়ী (ডি/এল পদ্ধতি)

প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ – শুবমান গিল

প্লেয়ার অফ দ্য সিরিজ – শুবমান গিল


ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারত


ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ভারত ম্যাচের একাদশ

ওয়েস্ট ইন্ডিজ নিকোলাস পুরান (অধিনায়ক), শাই হোপ (উইকেট রক্ষক), কেসি কার্টি, ব্র্যান্ডন কিং, শামারহ ব্রুকস, কাইল মায়ার্স, কিমো পল, জেসন হোল্ডার, আকিল হোসেন, জেডেন সিলস এবং হেইডেন ওয়ালশ।
ভারত শিখর ধাওয়ান (অধিনায়ক), সঞ্জু স্যামসন (উইকেট রক্ষক), শুবমান গিল, সূর্যকুমার যাদব, দীপক হুডা, শ্রেয়াস আইয়ার, অক্ষর প্যাটেল, মোহাম্মদ সিরাজ, শার্দুল ঠাকুর, যুজবেন্দ্র চাহাল, এবং প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ।

আরো ব্লগ