ব্লগ

ক্রিকেট হাইলাইটস, ১৪ জুলাই: ইংল্যান্ড বনাম ভারত (২য় ওডিআই)

ইংল্যান্ড বনাম ভারত

ইংল্যান্ড বনাম ভারত (২য় ওডিআই)

প্রথম ম্যাচে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছিল ইংল্যান্ড। অলআউট হয়েছিল মাত্র ১১০ রানে। জবাবে কোনো উইকেট না হারিয়েই, পুরোপুরি ১০ উইকেটের ব্যবধানে জয়লাভ করে ভারত।

গতকাল, বৃহস্পতিবার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের ২য় টিতে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছে লন্ডনের বিখ্যাত লর্ডস স্টেডিয়ামে। দুর্দান্ত ব্যাটিং ও বোলিং-এর মিশ্রণে ১০০ রানের জয় তুলে নিয়েছে ইংল্যান্ড।

এই ম্যাচেও টস জিতলো ভারত এবং টস জিতে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানিয়েছিল তারা।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে এবার লেগ স্পিনার ইয়ুজবেন্দ্র চাহালের ঘূর্ণি তোপের মুখে পড়েছে ইংলিশরা। জসপ্রিত বুমরাহ এবং হার্দিক পান্ডিয়া, মোহাম্মদ শামিদের বোলিং তোপ সামলে শেষ পর্যন্ত ইংল্যান্ড ২৪৬ রান সংগ্রহ করতে পেরেছে। তবুও, ১ ওভার বাকি থাকতে অলআউট হয়েছে তারা।

ব্যাট করতে নেমে ইংলিশদের কোনো ব্যাটারই সঠিকভাবে দাঁড়াতে পারেননি। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট পড়েছে তাদের। মইন আলি সর্বোচ্চ করেন ৪৭ রান। ৬৪ বলে ২ চার ও ২ ছয় মেরে ৪৭ রানের এই ইনিংস খেলেন তিনি।

ডেভিড উইলি করেন ৪১ রান। তিনি ৪৯ টি বলে খেলেছিলেন এবং দুইটি চার ও দুইটি ছয় মেরেছিলেন। জনি বেয়ারেস্টো করেন ৩৮ রান। তিনি ৩৮ টি বল খরচায় মারেন ৬ টি চার। লিয়াম লিভিংস্টোন করেন ৩৩ রান। ৩৩ রান করতে তিনি ৩৩ টি বল ব্যয় করেছিলেন এবং ২ টি চার ও ২ টি ছয় মেরেছিলেন। ২৩ বলে ২১ রান করেন বেন স্টোকস এবং ৩টি চার মেরেছিলেন। ৩৩ বলে ২৩ রান করেন জেসন রয়। এছাড়া বাকি খেলয়াররা মিলে করেন ৩০ রান এবং ১৩ রান এক্সট্রা সহ ২৪৬ রানে পৌছায় ইংল্যান্ড।

যজুবেন্দ্র চাহাল ৪ উইকেট পেয়েছেন। যশপ্রিত বুমরাহ এবং হার্দিক পান্ডিয়া নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। মোহাম্মদ শামি এবং প্রসিদ কৃষ্ণা একটি করে উইকেট পেয়েছেন।

প্রথম ওয়ানডেতে যশপ্রিত বুমরাহর আগুনে বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ইংল্যান্ড। পরের ম্যাচেই কঠিন জবাব দিলেন ইংল্যান্ডের বাঁহাতি পেসার রিস টপলি। ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড গড়েছেন এ দীর্ঘদেহী বাঁহাতি পেসার।

টপলির রেকর্ডগড়া বোলিংয়ে রীতিমতো উড়ে গেছে ভারত। অলআউট হওয়ার আগে ব্যাট করা ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ছিল ২৪৬ রান। জবাবে ভারত গুটিয়ে গেছে মাত্র ১৪৬ রানে। ইংলিশরা পেয়েছে ১০০ রানের জয়, সিরিজে ফিরিয়েছে সমতা। মাত্র ২৪ রান খরচায় ৬ উইকেট নিয়ে ইতিহাস গড়েছেন টপলি।

এতোদিন ধরে ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড ছিল পল কলিংউডের দখলে। ২০০৫ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩১ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন কলিংউড। এরপর ক্রিস ওকস ৪৫ ও ৪৭ রান খরচায় ৬ উইকেট। তাদেরকে ছাড়িয়ে গেলেন ২৮ বছর বয়সী টপলি।

লর্ডসে ২৪৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ডেভিড উইলি ও রিস টপলির তোপে মাত্র ৩১ রানেই ৪ উইকেট হারায় ভারত। রানের খাতাই খুলতে পারেনি রোহিত শর্মা ও রিশাভ পান্ত। শিখর ধাওয়ান ৯ ও বিরাট কোহলি করেন ১৬ রান। আউট হওয়ার আগে বেশ সাবলীলই মনে হচ্ছিল কোহলিকে।এরপর সুর্যকুমার যাদব ২৭, হার্দিক পান্ডিয়া ২৯, রবিন্দ্র জাদেজা ২৯ ও মোহাম্মদ শামি ২৩ রান করলেও তা ছিল চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল।

টপলির ৬ উইকেট ছাড়াও একটি করে উইকেট নিয়েছেন ডেভিড উইলি, ব্রাইড কারস, মইন আলি ও লিয়াম লিভিংস্টোন।

এখন ফাইনাল ও তৃতীয় ম্যাচেই ঠিক করবে কে ঘরে উঠাবে ওয়ানডে ট্রফি।


ইংল্যান্ড বনাম ভারত এর স্কোরবোর্ড

ইংল্যান্ড২৪৬/১০ (৪৯.০)

ভারত১৪৬/১০ (৩৮.৫)

ফলাফল – ইংল্যান্ড ১০০ রানে জয়ী

প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ – রিস টপলে


ইংল্যান্ড বনাম ভারত


ইংল্যান্ড বনাম ভারত ম্যাচের একাদশ

ইংল্যান্ড জস বাটলার (অধিনায়ক এবং উইকেটরক্ষক), জনি বেয়ারস্টো, জেসন রয়, বেন স্টোকস, জো রুট, মঈন আলি, লিয়াম লিভিংস্টোন, ডেভিড উইলি, ক্রেইগ ওভারটন, রিস টপলে, ব্রাইডন কারস
ভারত রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), ঋষভ পান্ত (উইকেটরক্ষক), বিরাট কোহলি, শিখর ধাওয়ান, হার্দিক পান্ডিয়া, সূর্যকুমার যাদব, মোহম্মদ শামি, রবীন্দ্র জাদেজা, যশপ্রিত বুমরাহ, প্রসিধ কৃষ্ণ, যুজবেন্দ্র চাহাল

আরো ব্লগ